Home » পশ্চিমবঙ্গ » ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পর তৃণমূল দলটা উঠে যাবে: মুকুল

২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পর তৃণমূল দলটা উঠে যাবে: মুকুল

কলকাতা: ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের পর তৃণমূল দলটা উঠে যাবে। এই মন্তব্য করলেন মুকুল রায় । আর সমাজবাদী পার্টি সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব প্রসঙ্গে বলেন, ‘অখিলেশ যাদবের দলটাও থাকবে না। ছোটো ছোটো দলগুলো উঠে যাবে’। গতকাল রাজ্যে আসেন অখিলেশ যাদব। মহাজাতি সদনে দলের সভার পর কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেন । দেখা করে বেরিয়ে আসার পর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে কেন্দ্রে বি জে পি সরকারের সমালোচনা করেন অখিলেশ । বিজেপি বিরোধিতার জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশে থাকার বার্তা দেন । এর প্রেক্ষিতেই আজ সমাজবাদী পার্টি ও তৃণমূলের সমালোচনা করলেন মুকুল ।
এদিকে রবিবার রাজ্য বিজেপি দফতরে মুকুল রায় ও দেবশ্রী রায়ের উপস্থিতিতে বিজেপি-তে যোগ দেন তৃণমূলের দেড় হাজার নেতা ও কর্মী । এঁরা বীরভূমের । বি জে পি-তে যোগদানকারী নেতাদের মধ্যে রয়েছেন দসকল কড়েয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান প্রণব মণ্ডল ও নলহাটি পৌরসভার যুব সভাপতি আবাউল্লা শেখ ।
বি জে পি সূত্রে জানা গেছে, বীরভূমের আলিগড় গ্রাম সংসদ থেকে ৩০০ জন কর্মী তৃণমূল থেকে BJP-তে যোগ দিয়েছেন। এছাড়া কালিপুর গ্রাম সংসদ, কীর্ণাহার গ্রাম পঞ্চায়েত, নলহাটি গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে ১,২০০ কর্মী তৃণমূল ছেড়ে বি জে পি-তে যোগ দিয়েছেন । যোগদান প্রসঙ্গে শাসকদলের সমালোচনা করেন মুকুল রায় । বলেন, ‘তৃণমূল আমলে পঞ্চায়েত এলাকাগুলিতে কোনও কাজ হয়নি । পঞ্চায়েতগুলিতে সিন্ডিকেটের আড্ডা চলছে । সাধারণ মানুষ পরিষেবা পাচ্ছেন না । তাই গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান থেকে উপপ্রধান বি জে পি-তে যোগ দিচ্ছেন ‘।
এদিকে, এই রাজ্যের ‘অগ্নিকন্যা’ বনাম ‘চাণক্য’র লড়াইটা এবার আসন্ন। আপাতত বাকযুদ্ধে ‘চাণক্যে’র কাছে গোল খেয়েই চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টিমের হেভি-ওয়েটরা । কেউই পেরে উঠছে না চানক্যের নিখুঁত যুক্তির কাছে । তাই দলত্যাগী প্রাক্তন ‘সেকেন্ড ইন কম্যান্ড’কে সামলাতে এবার ময়দানে নামতে হবে মমতাকেই । অন্তত রাজনৈতি বোদ্ধারা সেই কথাই মনে করেন । বিগত ২০ বছর তাঁর ‘ডানহাত’ বলে পরিচিত মুকুল রায় দিদির সঙ্গ ছেড়ে বিপক্ষ শিবিরে নাম লিখিয়েছেন তা প্রায় ২ মাসের কাছাকাছি হল । কাউকে ছেড়ে কথা বলছেনা মুকুল । তবে প্রথম থেকে দিদির ব্যাপারে একটু সাবধানী মুকুল । তাঁর প্রথম টার্গেট মুখ্যমন্ত্রীর ভাইপো অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় । ‘বিশ্ববাংলা’, ‘জাগোবাংলা’ থেকে শুরু করে ‘মা-মাটি-মানুষ’ প্রসঙ্গে মুকুলের নিশানায় ভাইপো অভিষেক ই।কিন্তু মমতার বিরুদ্ধে প্রায় ‘স্পিকটি নট’ মুকুল রায় । তবে মুখ্যমন্ত্রী এখনও পর্যন্ত মুকুলের বিরুদ্ধে মুখ খোলেননি সেই ভাবে । আর এখান থেকে রাজনৈতিক মহলে তৈরি হয়েছে কৌতুহল। বরং তিনি মুকুলের মোকাবিলা করার জন্য এগিয়ে দিয়েছেন অন্যান্য নেতাদের । পার্থ চট্টোপাধ্যায় থেকে শুরু করে ফিরহাদ হাকিম, মানস ভুঁইয়া, এমনকী অভিষেক- এরা সবাই এই যুদ্ধে মুকুলের কাছে ‘বাচ্চা ছেলে’ই প্রতিপন্ন হয়েছে বার-বার । আর এর পরেও কেন চুপ মুখ্যমন্ত্রী, প্রশ্ন উঠছে ।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

উর্দুতে শপথবাক্য পাঠ করা নিয়ে বিজেপি-বিএসপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত আলিগড়

আলিগড়: উর্দুতে শপথবাক্য পাঠ করা নিয়ে ধুন্ধুমার অবস্থা উত্তরপ্রদেশের আলিগড়ে। সূত্রের দাবি আলিগড় পৌরসভার নবনির্বাচিত ...