Home » পশ্চিমবঙ্গ » জল বন্টন চুক্তি নিয়ে মমতাকে গুরুত্ব দিতে রাজি নয় বাংলাদেশ

জল বন্টন চুক্তি নিয়ে মমতাকে গুরুত্ব দিতে রাজি নয় বাংলাদেশ

কলকাতা: গঙ্গার জল বন্টন চুক্তি নিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের মন্তব্যকে গুরুত্ব দিতে রাজি নয় বাংলাদেশ । বুধবার কলকাতায় এক অনুষ্ঠানে এ কথা জানান, বাংলাদেশের সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের । জলবন্টন চুক্তি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে টানাপড়ন চলছে । রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশের বক্তব্য, এই চুক্তি নিয়ে যে পরিস্থিতি তৈরী হয়েছে তাতে মার খাবে দু দেশের সম্পর্ক ।

কেন্দ্রীয় সরকার এই জল বন্টনের ব্যাপারে যে রূপরেখা তৈরী করেছে বাংলাদেশের সরকার তা মেনে নিতে রাজি । কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় বলেছেন তিনি ওই রূপরেখা মানতে রাজি নন । মুখ্যমন্ত্রীর মতে, তিস্তায় জল নেই । তিনি অপর দু-টি নদীর জল বাংলাদেশে পাঠানোর পক্ষপাতি । এ এবিষয়ে প্রশ্ন করলে ওবয়েদুল কাদের বলেন, এটা তো ওর ব্যক্তিগত মন্তব্য । আমরা তো কথা বলছি দিল্লির সরকারের সঙ্গে ।বিচ্ছিন্ন কোনও বক্তব্যের ওপর গুরুত্ব দিতে আমরা রাজি নই । আমাদের চুক্তি হবে কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে । সেটা উনি কেন্দ্রকে জানান । আমরা ভিন্ন কারও সঙ্গে এনিয়ে কথা বলব না ।
প্রসঙ্গত বলা যায়, ১৯৮৩ সাল থেকে তিস্তার জল নিয়ে দরাদরি চলছে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে । ২০১১ সালে একটি অন্তর্বর্তীকালীন চুক্তি হওয়ার কথা ছিল ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে । যার সময়কাল ছিল ১৫ বছরের । সেই অনুযায়ী তিস্তার ৪২.৫ শতাংশে ভারতের অধিকার ও ৩৭.৫ শতাংশ বাংলাদেশের অধিকার ছিল । এই চুক্তির বিরোধিতা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে তা আর স্বাক্ষরিত হয়নি । ২০১১ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে প্রস্তাবিত ঢাকা সফরও প্রথমে রাজি হয়ে এই চুক্তির বিরোধিতা করে শেষে বাতিল করে দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

বাংলাদেশ ডিসেম্বর থেকে মে মাসের মধ্যে প্রতিবছর তিস্তার জলের ৫০ শতাংশ ভাগ চায় । কারণ সেইসময়ে সেদেশে জলের যোগান সবচেয়ে কম থাকে । ফলে বাংলাদেশের কৃষকদের একাংশ জীবন-জীবিকা নিয়ে প্রবল সমস্যায় পড়েন । তবে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, তাদের নিজস্ব কিছু বাধ্যবাধকতা রয়েছে ।
মমতা বন্দোপাধ্যায়ের অভিযোগ, চাষবাস ও সেচের কাজে প্রয়োজনীয় পর্যাপ্ত জল তিস্তা থেকে রাজ্য পাচ্ছে না । এই অবস্থায় বাংলাদেশকে কীভাবে বেশি জল ছাড়া যেতে পারে । তিনি জানিয়েছিলেন , বাংলাদেশ জল পাক সেটাও তিনি চান । তবে তার জন্য বিকল্প প্রস্তাব তিনি দিয়েছেন । তিস্তার জল উত্তরবঙ্গের লাইফলাইন বলে জানিয়ে মমতা তোর্সা সহ বেশ কয়েকটি ছোট নদী যেগুলির জল বাংলাদেশকে দেওয়া যেতে পারে বলে জানিয়েছিলেন । বলেছিলেন, সেগুলির জলের ভাগ নিয়ে সমীক্ষা হোক । সেই জল দিতে রাজ্যের বাধা নেই বলেও শেখ হাসিনাকে জানিয়ে এসেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ।

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

উলুবেড়িয়া উপনির্বাচনে বিজেপি প্রার্থীর নাম ঘোষণা নিয়ে ধন্দ

কলকাতা: উলুবেড়িয়া লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে বিজেপি প্রার্থীর নাম চূড়ান্ত ঘোষণা নিয়ে ধন্দ দেখা দিয়েছে৷ দলের ...