Home » পশ্চিমবঙ্গ » তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী ও পুলিশ প্রশাসন মিলে সবং উপনির্বাচনে ভোট লুঠ করেছে: দিলীপ

তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী ও পুলিশ প্রশাসন মিলে সবং উপনির্বাচনে ভোট লুঠ করেছে: দিলীপ

কলকাতা: তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী এবং পুলিশ প্রশাসন মিলে সবং উপনির্বাচনে ভোট লুঠ করেছে বলে শুক্রবার অভিযোগ তুললেন রাজ্য বি জে পি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ৩০৬ টি বুথের মধ্যে ১৫০ টা বুথ দখল করা হয়েছে। ৩১ জন বি জে পি কর্মীকে আক্রমণ করা হয়েছে। ১১ জনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে দু জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। একজন মন্ডল কমিটির সাধারণ সম্পাদক। অন্য জন বুথ কমিটির সভাপতি।

এদিন দিলীপবাবু আরও বলেন, সেন্ট্রাল ফোর্স আছে। কিন্তু তাদের কাজে লাগানো হয় নি। আগের রাতে তাদের দিয়ে রুট মার্চ করানো হয় নি। সেন্ট্রাল ফোর্স এসে রুট মার্চ করলে লোকজনের মনোবল বাড়ে। ৬ কোম্পানি আরও সেন্ট্রাল ফোর্স আমরা চেয়ে ছিলাম। কিন্তু তারা আসে নি। নির্বাচন কমিশন সবংয়ে পাঠিয়ে ছিল ৮ কোম্পানি সেন্ট্রাল ফোর্স । তার মধ্যে চার কোম্পানি রুট মার্চ করতে চলে যায়। হিসেবে দেখা যায়, পঞ্চাশ শতাংশ বুথে দু জন করেও সেন্ট্রাল ফোর্স দেওয়া যায় নি। ১৫০ টা বুথ কভার করা যায় নি। তাই আমরা আরও ৬ কোম্পানি চেয়ে ছিলাম । কিন্তু আসে নি। ওখানে ভয়ের পরিবেশ তৈরি হয়েছে। আর জেলাশাসক বা পুলিশ সুপার সরকারের নির্দেশের বাইরে গিয়ে কিছুই করতে পারবেন না । এই সরকারের ওপর ভরসা নেই। এই প্রশাসনের ওপর আমরা ভরসা করছি না । আমরা নির্বাচন কমিশনকে ঘন্টায় ঘন্টায় লিখিত অভিযোগ জানিয়েছি । কিন্তু কাজ হয় নি।

রাজ্য সভাপতির অভিযোগ, রাজ্য পুলিশকে দেখা গেছে দর্শকের ভূমিকায়। পুলিশকে অকেজো করে রাখা হয়েছে। পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার এবং এলাকার এস ডি পি ও-কে নির্বাচন কমিশন সরিয়ে দিয়ে ছিল। তা স্বত্তেও গত রাতে তারা থানায় গিয়ে মনিটরিং করেন। পুলিশ দিয়ে ভোটারদের ভয় দেখানো হয়। তাদের ওপর অত্যাচার করা হচ্ছে। তাই ভোট সকাল থেকে কম পরছিল। এই পরিস্থিতির মধ্যে সবংয়ের ভোট হচ্ছে। তা প্রতিফলিত হবে।
তিনি বলেন, গুজরাট, হিমাচল প্রদেশে নির্বাচন হয়েছে। সেখানেও সি পি এম, কংগ্রেস রয়েছে। কোথাও তো এই ধরনের অভিযোগ হয় নি। সি পি এম, কংগ্রেস এখানেও আছে। শুধু তো আমি ভোট লুঠের অভিযোগ করছি না, তাঁরাও অভিযোগ করেছে। তাহলে কেন শুধু পশ্চিমবঙ্গে ভোট লুঠ হয়। এই ধরনের ব্যবস্থার পরিবর্তন দরকার বলে বি জে পি-র রাজ্য সভাপতি মনে করেন।

তাঁর ধারণা, সবংয়ে বি জে পি লাভবান হবে। বলেন, আমরা ভোট জেতার জন্য লড়ি। আমরা দ্বিতীয় না প্রথম স্থানে থাকব, সেটা সময়ই বলবে।
এদিকে, সবং-এর উপনির্বাচনে সাধারণ মানুষকে ভোট দিতে না দেবার অভিযোগে আজ বিকেলে নেতাজী সুভাষ রোডে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখায় বি,জে পি-র যুব মোর্চা। উমেশ রায়, ওমপ্রকাশ সিং, সুনীল শঙ্করের নেতৃত্বে নেতাজী সুভাষ রোড অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান যুব মোর্চার কর্মীরা। তাদের অভিযোগ, অনেক বুথ থেকে বি জে পি-র পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। বি জে পি কর্মীদের ওপর অহেতুক হামলা করেছে তৃণমূল কর্মীরা। এর প্রতিবাদে তারা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধায়ের একটি কুশ পুত্তলিকা দাহও করে। পরে তারা কিছুক্ষণের জন্য ব্রেবোন রোড অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায়।

About admin

One comment

  1. aamake daily bengala bhasha te khabar diben

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

উলুবেড়িয়া উপনির্বাচনে বিজেপি প্রার্থীর নাম ঘোষণা নিয়ে ধন্দ

কলকাতা: উলুবেড়িয়া লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে বিজেপি প্রার্থীর নাম চূড়ান্ত ঘোষণা নিয়ে ধন্দ দেখা দিয়েছে৷ দলের ...