Home » সংবাদ শিরোনাম » জেলে প্রথম রাত বিনিদ্র ছিলেন কয়েদি নম্বর ৩৩৫১

জেলে প্রথম রাত বিনিদ্র ছিলেন কয়েদি নম্বর ৩৩৫১

রাঁচি: জেলে প্রথম রাতটা জেগেই কাটালেন পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির দেওঘর মামলায় দোষী সাব্যস্ত আরজেডি প্রধান তথা বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদব| জানা গিয়েছে, বিরসা মুণ্ডা সেন্ট্রাল জেলে রাতভর বিনিদ্র ছিলেন এই বর্ষীয়ান নেতা৷

পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির দেওঘর মামলায় শনিবারই রাঁচির বিশেষ সিবিআই আদালতের রায়ে দোষী সাব্যস্ত হন ৬৯ বছরের আরজেডি প্রধান | রায় বের হতেই জেল হেফাজতে নেওয়া হয় লালুকে | ৩ জানুয়ারি এই মামলার সাজা ঘোষণা পর্যন্ত বীরসা মুণ্ডা সেন্ট্রাল জেলেই কাটাতে হচ্ছে বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে | জেলে লালুর একমাত্র পরিচয় কয়েদি নম্বর ৩৩৫১ ৷ জেলে তাঁর দৈনিক উপার্জন মাত্র ৪৬টাকা৷
জানা গিয়েছে, বিরসা মুণ্ডা সেন্ট্রাল জেলে প্রথম রাতটা বিনিদ্র ছিলেন বর্ষীয়ান নেতা৷ রক্ষীরা অনেকবার অনুরোধ করলেও তিনি ঘুমাতে যাননি৷ ফলে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতি বিগড়ে যেতে পারে এমনই আশঙ্কা করছে জেল কর্তৃপক্ষ৷ রাতভর পায়চারি করেছেন সেলে এই প্রবীণ নেতা ৷ ঠাণ্ডায় তাঁর পরনে ছিল সোয়েটার৷ কখনও চাদর জড়িয়ে নিয়েছিলেন তিনি৷ গভীর রাতে একটু তন্দ্রা মতো এসেছিল৷ তার পরেই খুব সকালে উঠে পড়েন লালুপ্রসাদ যাদব৷ জানা গিয়েছে, জেলের বাগানে কিছুক্ষণ হাঁটেন তিনি৷ সেখানেই চা-বিস্কুট দেওয়া হয় লালুপ্রসাদ যাদবকে ৷

প্রসঙ্গত, ১৯৯১ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত পশুখাদ্যের নাম করে দেওঘরের সরকারি কোষাগার থেকে ৮৯.২৭ লক্ষ টাকা তোলার অভিযোগ ওঠে লালুপ্রসাদ যাদব, জগন্নাথ মিশ্র, আর কে রানা, প্রাক্তন আইএএস অফিসার ফুলচাঁদ সিং, বেক জুলিয়াস ও মহেশ প্রসাদ, বিহারের বিদ্যাসাগর নিশাদ, জগদীশ শর্মা ও ধ্রুব ভগতদের মতো সাংসদ, আইএএস অফিসার ও সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে। শুরু হয় মামলা। ঘটনার তদন্তভার সিবিআই-এর হাতে দেওয়া হয়। ১৯৯৭ সালের ২৭ অক্টোবর ৩৮ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয় কেন্দ্রীয় এই তদন্তকারী সংস্থা। অভিযুক্তদের মধ্যে ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। তিনজন রাজসাক্ষী হয়েছেন। দু’জন অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছেন। এই মামলায় লালুপ্রসাদ যাদব সহ বাকি অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২০ বি , ৪০৯, ৪১৮, ৪২০, ৪৬৭, ৪৬৮, ৪৭১, ৪৭৭ (এ), ২০১ ও ৫১১ এবং দুর্নীতি দমন আইনের ১৩ (১) ডি ও ১৩ (২) ধারায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। শনিবার বহু আলোচিত এই মামলায় রায় ঘোষণা করেন রাঁচির বিশেষ সিবিআই আদালতের বিচারপতি শিবপাল সিং | ওই মামলায় লালু সহ ১৬ জনকে দোষী সাব্যস্ত করেন বিচারক | পাশাপাশি আর এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জগন্নাথ মিশ্র সহ ছয়জনকে বেকসুর খালাস করেন সিবিআই বিচারক | এই রায়ের পরই জেল হেফাজতে নেওয়া হয়েছে লালুকে | ৩ জানুয়ারি এই মামলার সাজা ঘোষণা করা হবে । ফলে আগামী ১১টি দিন তাকে বীরসা মুণ্ডা সেন্ট্রাল জেলেই কাটাতে হচ্ছে | যার প্রথম রাতটি বিনিদ্র কাটালেন এই বর্ষীয়ান নেতা |

About admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

তিন তালাক বিরোধী বিল নিয়ে সরব মমতা বন্দোপাধ্যায়

আমোদপুর: নরেন্দ্র মোদী সরকারের বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাকযুদ্ধ অব্যাহত| বিমুদ্রাকরণকে হাতিয়ার করে এতদিন তুলোধনা ...