মোদিকেই আবার প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চান শিল্পী-বুদ্ধিজীবীরা, কিন্তু কেন?

উনিশের লোকসভা নির্বাচন শুরুর প্রাকমুহূর্তে প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নরেন্দ্র মোদিকেই দেখতে চান দেশের শিল্পী, সাহিত্যিক, বুদ্ধিজীবীমহলের গরিষ্ঠ অংশ। পণ্ডিত যশরাজ, উস্তাদ গুলাম মুস্তাফা খান, পণ্ডিত বিশ্বমোহন ভাট, পণ্ডিত দেবু চৌধুরীর মতো দেশের মোট ৯০৭জন শিল্পী ও বুদ্ধিজীবী মোদির নেতৃত্বে মজবুত সরকার চান। এঁদের মধ্যে বাংলারও ২৫জন শিল্পী ও সাহিত্যিক রয়েছেন।

দেশের বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবীদের সংগঠন ‘নেশন ফাসর্ট কালেক্টিভ’-এর পক্ষে এক প্রেস বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আমরা বিশ্বাস করি গত ৫ বছরে দেশ দুর্নীতিমুক্ত, উন্নয়নকামী একটি সরকার দেখেছে। সংকটের মুহূর্তে নরেন্দ্র মোদির সুযোগ্য নেতৃত্বে দেশ বিকাশের পথে এগিয়ে গিয়েছে। বিশেষ করে যখন উগ্রপন্থার দ্বারা দেশ আক্রান্ত হয়েছে তখন প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য নেতৃত্বে পরিস্থিতির সফল মোকাবিলা করা গিয়েছে। সুতরাং আমাদের দরকার এমন একটা মজবুত সরকার, যা মজবুর সরকার নয়।’

শিল্পী-বুদ্ধিজীবীদের এই তালিকায় রয়েছেন কুচিপুড়ি নৃত্যশিল্পী রাজা ও রাধা রেড্ডি, ধ্রুˆপদ শিল্পী উস্তাদ ওয়াসিফুদ্দিন ডাগর, কন্ঠশিল্পী (ঠুংরি) রীতা গঙ্গোপাধ্যায়, গায়ক শঙ্কর মহাদেবন, লোকশিল্পী মালিনী অবস্থি, অভিনেত্রী কোয়েনা মিত্র, পল্লবী যোশী, মোদির চরিত্রাভিনেতা বিবেক ওবেরয়, লেখক হরিশ ভিমানি, গায়িকা অনুরাধা পাড়োয়াল, খেয়াল শিল্পী ভজন সপুরী, চিত্রশিল্পী বৃন্দা চাড্ডা, অভিনেতা গজেন্দ্র চৌহান, পঙ্কজ ধীর প্রমুখ।

Spread the love

2 comments on “মোদিকেই আবার প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চান শিল্পী-বুদ্ধিজীবীরা, কিন্তু কেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *