বিজেপি বাংলায় সরকার গঠন না করা পর্যন্ত খালি পায়ে জীবন কাটানোর পণ বিজেপি কর্মী জয়দেব বাগদির

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: কেউ রোগ ভোগ থেকে মুক্তি পাবার জন্য। আবার কেউ নিজের জীবন ও পরিবাবের মঙ্গল কামনায় দেবতার কাছে মানত করেথাকেন। সেই মানত মেনে কেউ চুল কাটেন না, আবার কেউ দাড়িও কামান না। মানত পূরণ না হওয়া পর্যন্ত ভক্তদের এমন কৃচ্ছসাধন চালিয়ে যাবার ঘটনা অবশ্য নতুন কিছু নয়। তবে বর্ধমানের বুদবুদের দেবশালা গ্রামে নিবাসী বিজেপি কর্মী জয়দেব বাগদির করা মানতের কথা শুনলে স্বয়ং বিজেপির সর্ব ভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ ও নরেন্দ্র মোদিও হয়তো তাজ্জব বনে যাবেন। যেমনটা জয়দব বাগদির মানতের কথা শুনে বুধবার হতবাক হয়ে গিয়েছিলেন বর্ধমান দুর্গাপুর আসনের বিজেপি প্রার্থী সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়া। বুদবুদ থেকে বর্ধমান শহরে হাজির হয়ে জয়দেব বাগদি এদিন বিজেপি প্রার্থী আলুওয়ালিয়াকে স্বাগত জানিয়ে গেলেন। বলে গেলেন “স্যার আমিও বিজেপি দলের একজন সৈনিক।”

জেলার সকল বিজেপি নেতারা জানেন দেবশালা গ্রাম নিবাসী জয়দেব বাগদি একজন একনিষ্ঠ বিজেপি কর্মী। বিজেপি পার্টি করার জন্য তিনি আক্রান্ত হয়েছেন। কেসও খেয়েছেন। তারপরেও তিনি দল ছাড়েননি। দলের দুর্দিনেও দলের প্রতি তাঁর আনুগত্য কোন অংশে কমেনি। দলের সমস্ত কর্মসূচিতেই হাজির থেকেছেন। তবে জয়দেববাবু অবশ্য চুল-দাড়ি না-কাটা গেরুয়া বস্ত্র পরিহিত বিজেপি কর্মী নন। আর পাঁচটা সাধারণ মানুষের মত তিনিও প্যান্ট-জামা পরেই বাইরে বের হন। সেলুনে গিয়ে চুল দাড়িও নিয়মিত কাটেন। কিন্তু দু-পায়ের একটিতেও কোন ব্যামো না থাকা সত্ত্বেও তিনি তাঁর পায়ে গলান না চপ্পল বা জুতো। বিজেপির ঝান্ডা কাঁধে না নিয়েই তিনি খালি পায়ে হেঁটেই এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রামে ও শহরে ঘুরে বেড়ান। বিজেপির মিটিং মিছিলেও তিনি খালি পায়ে সামিল হয়ে থাকেন।

কেন জয়দেববাবু এমন কৃচ্ছসাধন করে চলেছেন তা শুনলে তাবড় বিজেপি নেতা কর্মীরা তাঁকে স্যালুট না জানিয়ে পারবেন না। জয়দেব বাগদি এদিন জানালেন, তিনি নিজের স্বার্থে দেবতার কাছে কোন মানত করেননি ঠিকই। তবে কঠিন পণ করেছেন। কি সেই পণ? তার উত্তরে জয়দেববাবু জানালেন, “বিজেপি যতদিন না পর্যন্ত এই রাজ্যে সরকার গঠন করবে ততদিন তিনি তাঁর পায়ে চপ্পল বা জুতো কিছুই গলাবেন না। বিজেপি এই রাজ্যে সরকার গঠনের পরেই ভঙ্গ হবে তাঁর পণ।”

বিজেপি প্রার্থী আলুওয়ালিয়া সব শুনে বললেন, “জয়দেববাবুর পণের কথা শুনে আমি সত্যি গর্বিত হলাম। ওনার স্বপ্ন পুরণ হবেই। আমরা সকল বিজেপি নেতা-কর্মীরা সেই দিনটারই প্রতিক্ষায় রয়েছি।”

ছবিতে আলুওয়ালিয়ার সাথে জয়দেব বাগদি

Spread the love

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *